‘বিপরীত স্রোতে চলা এক মানবিক শিল্পী’ - নাসরীন বেগম

নাসরীন বেগম বিপরীত স্রোতে চলা এক শিল্পী। দীর্ঘ সময়ের ভাবনা, বেঁচে থাকা, আনন্দ-বেদনা, সূক্ষ্ম অনুভূতির সরলীকরণই তাঁর শিল্প সৃষ্টির প্রয়াস। এক সুদীর্ঘ সাধনার নান্দনিক রূপায়ণ ঘটান বিশাল ক্যানভাসে। শিল্পের রস আস্বাদন করেছেন প্রকৃতি থেকে। মাটি ও মানুষের সঙ্গে মিশে গিয়ে। শিল্পচর্চায় প্রাধান্য তাই আনাচকানাচ ঘুরে জেনে নেওয়া দেশীয় সংস্কৃতি। অন্যায়, অত্যাচার, শোষণ, বঞ্চনার প্রতিবাদ মূর্ত হয়েছে তাঁর রঙের কারিকুরিতে। নিজস্বকরণ কৌশল পাখা মেলেছে আশ্চর্য দক্ষতায়। মাটি ও মানুষকে ভালোবাসেন অমøানচিত্তে। নারী হিসেবে একজন শিল্পীর চোখ দিয়ে দেখা নারীর ঘর-মন-জানালা কিংবা নারী জগৎ তাঁর শিল্পে ধরা দিয়েছে অনন্য এক মাত্রায়। ভাবনার বৈচিত্র্য, প্রকৃতি, দিনযাপন, প্রেম, মানবিকতা, শিকড়ের টান তাঁর শিল্পের আরাধনা কিংবা আধেয়। ক্যানভাসের স্বয়ংসম্পূর্ণ এবং স্বতঃস্ফূর্ত সৃষ্টি তাই প্রকৃতি, শিকড় ও মানবিকতা। বহু যাতনা পেরিয়ে আটপৌরে জীবন ও শিল্পচর্চা পাশাপাশি হাত ধরে দাঁড়ায় একই ক্যানভাসে। ভালোবাসেন নির্জনে নিজেকে মগ্ন রাখতে। আপন মনে, আপন ধ্যানে, নিজের কাজটি করে যেতে চান লোকচক্ষুর আড়ালে। যাপিত জীবনের মগ্নতা ছুঁয়েই যেন তাঁর সৃষ্ট ছবিগুলো কথা বলে নাসরীন বেগম হয়ে।